বিপথগামীতা ও সন্ত্রাস মোকাবেলায় ছেলে-মেয়েদের বেড়ে উঠার সুষ্ঠু সামাজিক ও প্রাকৃতিক পরিবেশ নিশ


দেশের কিশোর-তরুণদের যেখানে স্বাভাবিকভাবে বিকশিত হওয়ার কথা সেখানে তারা বিপথগামী হচ্ছে। তারা ঝুঁকে পড়ছে সন্ত্রাণবাদের দিকে। ফলে দেশ এবং জাতি যেমন অপরিমেয় ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে তেমনি ঝরে যাচ্ছে অনেক সম্ভাবনাময় তরুণ প্রাণ। আমাদের কর্তব্য হচ্ছে এই কিশোর-তরুণদের বিপথগামীতা থেকে রক্ষা করা এবং এটাই হবে সন্ত্রাসকে মুলোৎপাটনের মৌলিক কাজ। আমাদের পারিবারিক, সামাজিক জীবন ক্রমাগত অস্থির হয়ে পড়ছে। প্রাকৃতিক পরিবেশের সাথে সামাজিক পরিবেশের অবক্ষয় হচ্ছে, আমরা সজ্ঞানে বা না জেনে এই পরিবেশ ধ্বংসকে ত্বরাণি¦ত করছি। তরুণ-কিশোরদের বিপথগামী হওয়ার পিছনে এটাও একটি অন্যতম কারণ। বিপথগামীতা ও সন্ত্রাস মোকাবেলায় ছেলে-মেয়েদের বেড়ে উঠার সুষ্ঠু সামাজিক ও প্রাকৃতিক পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। আজ ২৩ জুলাই ২০১৬, শনিবার, সকাল ১১টায়, জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ১৬টি পরিবেশবাদী ও সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত অবস্থান কর্মসূচীতে বক্তারা উক্ত অভিমত ব্যক্ত করেন।


 
কিশোর-তরুণদের বিপথগামীতা থেকে ফিরাতে প্রকৃতিসম্মত মনোসামাজিক পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে

বিশ্বব্যাপী এখন সবচেয়ে বেশি উচ্চারিত শব্দযুগল হচ্ছে ‘সন্ত্রাস’ এবং ‘সন্ত্রাসী হামলা’। মাত্র গতকাল (১৫ জুলাই) ফ্রান্সে সন্ত্রাসী হামলার ভয়াবহ ফলাফল আমরা অতীব বেদনা ও তীব্র ঘৃণার সাথে প্রত্যক্ষ করেছি। বাংলাদেশেও এই বর্বর ঘটনার শুরু হয়েছে গত শতাব্দীর শেষ দশক হতে। বিগত ১ জুলাই ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারীতে এবং ৭ জুলাই ঈদুল ফিতরের দিন কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ার দেশের সর্ববৃহৎ ঈদের জামাতের সন্নিকটে সংঘটিত সন্ত্রাসী হামলায় দেশবাসী হতবিহ্বল এবং আতংকিত। আরো শিউরে ওঠার মতো বিষয় হচ্ছে এ দুটো সন্ত্রাসী হামলায়  অংশ নেয়া সন্ত্রাসীদের মধ্যে যারা নিহত হয়েছে তারা সকলেই কিশোর-তরুণ। দেশের কিশোর-তরুণদের যেখানে স্বাভাবিকভাবে বিকশিত হওয়ার কথা সেখানে তারা বিপথগামী হচ্ছে। তারা ঝুঁকে পড়ছে সন্ত্রাণবাদের দিকে। ফলে দেশ এবং জাতি যেমন অপরিমেয় ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে তেমনি ঝরে যাচ্ছে অনেক সম্ভাবনাময় তরুণ প্রাণ। আমাদের কর্তব্য হচ্ছে এই কিশোর-তরুণদের বিপথগামীতা থেকে রক্ষা করা। এবং এটাই হবে সন্ত্রাসকে মুলোৎপাটনের মৌলিক কাজ। একটি শিশুর সুস্থ ও স্বাভাবিক বিকাশের জন্য প্রয়োজন পরিবার, বিদ্যালয়, সমাজ সংগঠনের সুস্থ ও এবং প্রকৃতিসম্মত পরিবেশ। কিশোর-তরুণদের বিপথগামী থেকে ফেরাতে প্রকৃতিসম্মত মনোসামাজিক পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা) এর আয়োজনে আজ ১৬ জুলাই ২০১৬, সকাল ১১টায়, পবা কার্যালয়ে ‘‘বিপথগামী কিশোর-তরুণ ও মনোসামাজিক পরিবেশ” শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা উক্ত অভিমত ব্যক্ত করেন।
 

পৃথক লেনে বিআরটিসির পর্যাপ্ত বাস স্বল্প মেয়াদে যাতায়াত সংকটের সহজ সমাধান



পৃথক লেনে বিআরটিসির পর্যাপ্ত বাসের মাধ্যমে স্বল্প মেয়াদে সহজে ঢাকার যাতায়াত সংকটের সমাধান করা সম্ভব। তবে এ লক্ষ্যে মোবাইল অ্যাপস মাধ্যমে যাত্রীর চাহিদা  নিধারণ, পৃথক লেন তৈরি এবং বিআরটিসির ব্যবস্থাপনা উন্নত করা প্রয়োজন হবে। গণ যাতায়াত ব্যবস্থা সংক্রান্ত  আজ পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা)-র আলোচনা সভায় এ প্রস্তাবনা দেয়া হয়। সভায় পবা-র চেয়ারম্যান আবু নাসের খানের সভাপতিত্বে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন নগর পরিকল্পনাবিদ শাহজাবিন কবির জেবিন।
প্রাতিষ্ঠানিক কার্যক্রম


দেশের কিশোর-তরুণদের যেখানে স্বাভাবিকভাবে বিকশিত হওয়ার কথা সেখানে তারা বিপথগামী হচ্ছে। তারা ঝুঁকে পড়ছে সন্ত্রাণবাদের দিকে। ফলে দেশ এবং জাতি যেমন অপরিমেয় ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে তেমনি ঝরে যাচ্ছে অনেক সম্ভাবনাময় তরুণ প্রাণ। আমাদের কর্তব্য হচ্ছে এই কিশোর-তরুণদের বিপথগামীতা থেকে রক্ষা করা এবং এটাই হবে সন্ত্রাসকে মুলোৎপাটনের মৌলিক কাজ। আমাদের পারিবারিক, সামাজিক জীবন ক্রমাগত অস্থির হয়ে পড়ছে। প্রাকৃতিক পরিবেশের সাথে সামাজিক পরিবেশের অবক্ষয় হচ্ছে, আমরা সজ্ঞানে বা না জেনে এই পরিবেশ ধ্বংসকে ত্বরাণি¦ত করছি। তরুণ-কিশোরদের বিপথগামী হওয়ার পিছনে এটাও একটি অন্যতম কারণ। বিপথগামীতা ও সন্ত্রাস মোকাবেলায় ছেলে-মেয়েদের বেড়ে উঠার সুষ্ঠু সামাজিক ও প্রাকৃতিক পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। আজ ২৩ জুলাই ২০১৬, শনিবার, সকাল ১১টায়, জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ১৬টি পরিবেশবাদী ও সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত অবস্থান কর্মসূচীতে বক্তারা উক্ত অভিমত ব্যক্ত করেন।


 

বিশ্বব্যাপী এখন সবচেয়ে বেশি উচ্চারিত শব্দযুগল হচ্ছে ‘সন্ত্রাস’ এবং ‘সন্ত্রাসী হামলা’। মাত্র গতকাল (১৫ জুলাই) ফ্রান্সে সন্ত্রাসী হামলার ভয়াবহ ফলাফল আমরা অতীব বেদনা ও তীব্র ঘৃণার সাথে প্রত্যক্ষ করেছি। বাংলাদেশেও এই বর্বর ঘটনার শুরু হয়েছে গত শতাব্দীর শেষ দশক হতে। বিগত ১ জুলাই ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারীতে এবং ৭ জুলাই ঈদুল ফিতরের দিন কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ার দেশের সর্ববৃহৎ ঈদের জামাতের সন্নিকটে সংঘটিত সন্ত্রাসী হামলায় দেশবাসী হতবিহ্বল এবং আতংকিত। আরো শিউরে ওঠার মতো বিষয় হচ্ছে এ দুটো সন্ত্রাসী হামলায়  অংশ নেয়া সন্ত্রাসীদের মধ্যে যারা নিহত হয়েছে তারা সকলেই কিশোর-তরুণ। দেশের কিশোর-তরুণদের যেখানে স্বাভাবিকভাবে বিকশিত হওয়ার কথা সেখানে তারা বিপথগামী হচ্ছে। তারা ঝুঁকে পড়ছে সন্ত্রাণবাদের দিকে। ফলে দেশ এবং জাতি যেমন অপরিমেয় ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে তেমনি ঝরে যাচ্ছে অনেক সম্ভাবনাময় তরুণ প্রাণ। আমাদের কর্তব্য হচ্ছে এই কিশোর-তরুণদের বিপথগামীতা থেকে রক্ষা করা। এবং এটাই হবে সন্ত্রাসকে মুলোৎপাটনের মৌলিক কাজ। একটি শিশুর সুস্থ ও স্বাভাবিক বিকাশের জন্য প্রয়োজন পরিবার, বিদ্যালয়, সমাজ সংগঠনের সুস্থ ও এবং প্রকৃতিসম্মত পরিবেশ। কিশোর-তরুণদের বিপথগামী থেকে ফেরাতে প্রকৃতিসম্মত মনোসামাজিক পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা) এর আয়োজনে আজ ১৬ জুলাই ২০১৬, সকাল ১১টায়, পবা কার্যালয়ে ‘‘বিপথগামী কিশোর-তরুণ ও মনোসামাজিক পরিবেশ” শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা উক্ত অভিমত ব্যক্ত করেন।



পৃথক লেনে বিআরটিসির পর্যাপ্ত বাসের মাধ্যমে স্বল্প মেয়াদে সহজে ঢাকার যাতায়াত সংকটের সমাধান করা সম্ভব। তবে এ লক্ষ্যে মোবাইল অ্যাপস মাধ্যমে যাত্রীর চাহিদা  নিধারণ, পৃথক লেন তৈরি এবং বিআরটিসির ব্যবস্থাপনা উন্নত করা প্রয়োজন হবে। গণ যাতায়াত ব্যবস্থা সংক্রান্ত  আজ পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা)-র আলোচনা সভায় এ প্রস্তাবনা দেয়া হয়। সভায় পবা-র চেয়ারম্যান আবু নাসের খানের সভাপতিত্বে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন নগর পরিকল্পনাবিদ শাহজাবিন কবির জেবিন।
আমাদের কার্যক্রম
ভিডিও